HostGator Web Hosting
বাংলায় ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার সেরা প্লাটফর্ম ডিজিটাল মার্কেটিং সোলজার ব্লগ
HostGator Web Hosting
Flatsome Woocommerce Theme

ফ্লাটসাম থিম । মাল্টিপারপাস রেসপনসিভ উ-কমার্স থিম ২০২০

ফ্লাটসাম হচ্ছে বিশ্বের ১ নাম্বার উ-কমার্স এবং বিজনেস থিম। ফ্লাটসাম থিমের রয়েছে ১৪১,৯৮৪+ সেটিস্ফাইড কাস্টমার, তো আপনি সহজেই বুঝতে পারছেন যে থিমটি কেমন জনপ্রিয়? কোন ধরনের কোডিং নলেজ ছাড়া এবং কোন ডেভেলপার ছাড়াই আপনি খুব সহজেই কাস্টমাইজ করতে পারবেন। শপ, কোম্পানি ওয়েবসাইট, ক্লায়েন্ট ওয়েবসাইট এবং ফ্রীল্যান্সারদের জন্য ফ্লাটসাম থিম একটি বেষ্ট থিম। তাছাড়া ফ্লাটসাম থিমের রয়েছে আনলিমিটেড অপশন এবং সাথে রেভুলিউশনারি রেসপনসিভ পেজ বিল্ডার যা আপনাকে এমন সক্ষমতা দিবে যাতে কোন কোডিং ছাড়াই ডেভেলপ করতে পারেন।   

ফ্লাটসাম থিম যেসকল নিসে ব্যবহার করতে পারবেনঃ

ফ্লাটসাম থিমস কিনলে আপনি ক্লাসিক শপ, কিউট শপ, বিগ সেল, প্যারাল্লাক্স শপ, ফুল্ল স্ক্রিন স্টাইল ফ্যাশন, গ্রিড স্টাইল, সিম্পল স্লাইডার, স্পোর্ট শপ, ভেন্ডর শপ, কর্পোরেট, ফ্রীল্যান্সার, এজেন্সি, ইত্যাদি নিসে ব্যবহার করতে পারবেন। ডেমোগুলো দেখুন-

কেন ফ্লাটসাম থিমস কিনবেন? ১৭টি প্রধান কারণঃ

১। ফ্লাটসাম থিমের লাইভ পেজ বিল্ডার এবং বিশাল এলিমেন্ট লাইব্রেরী ব্যবহার করে আপনি যেভাবে ইচ্ছা আপনার ওয়েবসাইটকে ডেভেলপ করতে পারবেন।

২। ফ্লাটসাম থিম হচ্ছে অন্যতম একটি ওয়ার্ডপ্রেস ওয়েবসাইট যা স্পীড অপ্টিমাইজড করা। আর এটি আপনার ওয়েবসাইটের SEO এর জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। এই থিমের মোবাইল ডিভাইস স্পীড হল 100/100 UX, ডেক্সটপ স্পীড হল 100/100 UX,  গুগুল পেজ স্পীড হল এবং 98/100 UX ।

৩। ফ্লাটসাম থিমের প্রি-ডিফাইন্ড এবং সেকশন লে-আউটের বিশাল অনলাইন লাইব্রেরী রয়েছে। আপনি যে কোন সেকশন আপনার ওয়েবসাইটে সেটআপ করতে পারবেন।

৪। আপনার যে ডেমো পছন্দ হয় সেই ডেমোটি আপনি এক ক্লিকেই সম্পূর্ণ কনটেন্টসহ ইন্সটল করতে পারবেন।

৫। এই থিমের রয়েছে বিশাল এলিমেন্ট লাইব্রেরী যা ব্যবহার করে আপ্নি নিজের মত করে আলাদা ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারবেন।

৬। ফ্লাটসাম থিমটি আপনি নিজের ভাষাসহ যে কোন ভাষাতেই অনুবাদ করতে পারবেন।  

৭। ফ্লাটসাম থিম মোবাইল ডিভাইসের জন্য অপ্টিমাইজড করা যাতে মোবাইল ডিভাইস ব্যবহারকারী খুব সহজেই এবং দ্রুত ন্যাভিগেশনবার ব্যবহার করতে পারেন।

৮। এই থিমের আছে আনলিমিটেড হেডার অপশন। আপনি এই থিমের হেডার অপশন ব্যবহার করে পার্ফেক্টভাবে এবং স্মার্টভাবে নতুন হেডার তৈরি করতে পারবেন।

৯। ফ্লাটসাম থিমের পেজ বিল্ডার ব্যবহার করে আপনি রেসপনসিভ ব্যানার এবং স্লাইডার তৈরি করতে পারবেন। এর জন্য আলাদা কোন স্লাইডার আপনাকে কিনতে হবে না।

১০। আপনি ফ্লাটসাম থিমের টাইপোগ্রাফি সম্পূর্ণভাবে কনট্রোল করতে পারবেন।

১১। এই থিইমের lazy loading & Adaptive image functionality  এর জন্য আপনার ওয়েবসাইটের ইমেজগুলো খুব দ্রুতই লোড হয়ে যায়।

১২। আপনার ওয়েবসাইটের ভিজিটরদের তথ্য কালেক্ট করার জন্য কন্টাক্ট ফর্ম যেখানে সেটআপ করলে সবচেয়ে বেশি সুবিধা আপনি সেখানেই সেটআপ করতে পারবেন।

১৩।  ফ্লাটসাম থিম আপনার ওয়েবসাইটের জন্য ব্যবহার করলে গুগুলে আপনি হাই র‍্যাংক পেতে পারেন কারন এই থিমটি সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন করে তৈরি করা হয়েছে।

১৪। ফ্লাটসাম থিমটি সম্পূর্ণভাবে উ-কমার্সের সাথে কম্পেটিবল করা, তাই আপনি এই থিম ব্যবহার করে যে কোন প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারবেন।

১৫। ফ্লাটসাম থিমের রয়েছে আনলিমিটেড প্রোডাক্ট, পেজ এবং ক্যাটাগরি লে-আউট।

১৬। সর্বোপরি, ফ্লাটসাম থিমটি আপনি ফ্রীতেই লাইফটাইম আপডেট পাচ্ছেন। কোন চার্জ প্রযোজ্য নয়।

১৭। তাই আমি মনে করি যদি আপনি ফ্লাটসাম থিমস দিয়ে আপনি আপনার অনলাইন বিজনেস শুরু করেন তাহলে খুব দক্ষতা এবং সফলতার সাথেই বিজনেস করতে পারবেন।

ফ্লাটসাম থিম সেটআপ এবং কাস্টমাইজিং গাইডলাইনঃ

ফ্লাটসাম থিমস সেটিসফাইড কাস্টমার রিভিউঃ

Avatar

Mohammad Ali

হাই, আমি মোহাম্মদ আলী। আমার ব্লগে স্বাগতম. আমি একজন ওয়েব ডিজাইনার, ডিজিটাল মার্কেটিং স্পেশালিস্ট এবং কনটেন্ট রাইটার। আমি এই ব্লগের প্রতিষ্ঠাতা। আপনার উপকার আমার সফলতা। ভাল লাগলে শেয়ার করুন।

HostGator Web Hosting

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *